জঙ্গলবাড়ী বাতিঘর

শিখরী ফাউন্ডেশনের “একটি গ্রাম, একটি পাঠাগার” প্রকল্পের অধীনে প্রতিটি গ্রামে একটি করে পাঠাগার স্থাপনের লক্ষ্যে সংশ্লিষ্ট গ্রামের যুবসমাজ, সুশীল সমাজ ও নেতৃবৃন্দের প্রত্যক্ষ অংশগ্রহণের মাধ্যমে “Light House” বা “বাতিঘর” প্রতিষ্ঠা প্রক্রিয়ার প্রথম সফল কার্যক্রম হিসেবে ময়মনসিংহ জেলার ফুলবাড়ীয়া উপজেলার জংগলবাড়ী গ্রামে স্থাপিত হয়েছে জংগলবাড়ী বাতিঘর বা Junglebari Lighthouse.

২২শে মে, ২০১৬ খিঃ সকালে জংগলবাড়ী প্রাথমিক বিদ্যালয় সংলগ্ন স্থানের একটি ঘরে একটি বেঞ্চ, একটি তাক ও স্থানীয় কয়েকজন তরুণ-যুবকের দানকৃত একুশটি বই নিয়ে অনানুষ্ঠানিকভাবে যাত্রা শুরু করলো জংগলবাড়ী বাতিঘর।

এসময় জংগলবাড়ী গ্রামনিবাসী ইঞ্জিনিয়ার ফজলে রাব্বী জামান, শিখরী ফাউন্ডেশন’র সভাপতি মেহেদী কাউসার সহ প্রায় কুড়িজন যুবক উপস্থিত ছিলেন।

জঙ্গলবাড়ী বাতিঘর, একটি স্বপ্ন, একটি আলোক উৎস। অন্ধকারে ঢাকা সমাজের প্রতিটি কোণে জ্ঞানের আলো ছড়িয়ে দেয়ার দৃঢ় প্রত্যয়ে শিখরী ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে ও জঙ্গলবাড়ী গ্রামের উদ্যমী তরুণ সমাজের প্রত্যক্ষ সহযোগিতায় প্রতিষ্ঠিত হয়েছে এই গ্রাম পাঠাগার।

প্রতিষ্ঠার কয়েকদিনের মধ্যেই এই পাঠাগার অত্র গ্রামের জ্ঞানপিপাসু সকল বয়সী মানুষের দৃষ্টি আকর্ষণে সক্ষম হয়েছে। যার ফলে শিশু থেকে বৃদ্ধ, সকলেই সকাল-বিকাল পাঠাগারে এসে নিয়মিত পাঠভ্যাস গড়ে তুলছেন।

এখনও যারা দূর থেকে এখানে আসবেন বলে ভাবছেন, তারা চলে আসুন। একবার অভ্যাস গড়ে তুলুন। প্রতিদিন অন্তত কিছু পড়তে চেষ্টা করুন।

জঙ্গলবাড়ী বাতিঘরে আপনাদের সকলকেই আমন্ত্রণ জানানো হচ্ছে।

 

উল্লেখ্য, প্রতিদিন সকাল ০৭.০০-১০.০০ টা এবং বিকেল ০৪.০০-০৬.০০ টা পর্যন্ত পাঠাগার খোলা থাকে।

ধন্যবাদ।